শনিবার ৭ বৈশাখ, ১৪৩১ ২০ এপ্রিল, ২০২৪ শনিবার

কানাডায় তীব্র দাবদাহ, মৃত্যু বেড়ে ২৩০

অনলাইন ডেস্ক :-তীব্র দাবদাহে বিপর্যস্ত কানাডার জনজীবন। তিন দিনে তীব্র গরমে মারা গেছেন ২৩০ জনের বেশি। যাদের বেশির ভাগই বয়স্ক।

মঙ্গলবার (২৯ জুন) দেশটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ ৪৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় কানাডার ব্রিটিশ কলম্বিয়া প্রদেশে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে সব ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

তীব্র গরমে পুড়ছে কানাডা। দাবদাহ থেকে বাঁচতে সমুদ্র সৈকতে জড়ো হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। কেউ আবার একটু স্বস্তি পেতে ঠাঁই নিয়েছেন গাছের নিচে।

তীব্র গরমে ব্যাহত হচ্ছে স্বাভাবিক কাজকর্ম। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছেন না কেউই। দাবদাহের কারণে তিন দিনে মারা গেছেন দুই শতাধিক। এদের বেশি ভাগই বয়স্ক। গরমের তীব্রতায় অসহনীয় দুর্ভোগে পড়েছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরাও।

প্রবাসীরা বলছেন, এ ধরনের গরম তারা কখনোই অনুভব করেনি। গরমে বাইরে অবস্থান করা কঠিন হয়ে পড়েছে।

মঙ্গলবার লায়টন শহরে দেশটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ ৪৯ ডিগ্রি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। এর আগে, সোমবার একই শহরে সর্বোচ্চ ৪৬ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়।

স্থানীয়রা বলছেন, এত গরম যে সব সময় সাথে পানি নিয়ে থাকতে হচ্ছে। কিচ্ছু করা যাচ্ছে না। আমর জীবনে এমন গরম আগে কখনো অনুভব করিনি। সাধারণত জুন মাসে একটু গরম থাকে। কিন্তু এত গরম হবে ভাবতেও পারিনি। মনে হচ্ছে জুলাই এবং আগস্টেও এই গরম সহ্য করতে হবে।

পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় ব্রিটিশ কলম্বিয়া প্রদেশে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে স্কুল, কলেজসহ সব ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

আগামী কয়েকদিন কানাডায় এমন দাবদাহ বিরাজ করবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছেন দেশটির আবহাওয়া দফতর।

বিষেরবাঁশী.কম/ডেস্ক/আয়েশা

Categories: আন্তর্জাতিক

Leave A Reply

Your email address will not be published.