শনিবার ৭ বৈশাখ, ১৪৩১ ২০ এপ্রিল, ২০২৪ শনিবার

করোনাভাইরাসে মিনিটে শনাক্ত ৭, ঘণ্টায় মৃত্যুও ৭

অনলাইন ডেস্ক:– দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে একদিনে প্রতি মিনিট ও ঘণ্টায় ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৬৪ জনের মৃত্যু হয়। সে হিসেবে ঘণ্টায় প্রায় ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদিন ৯ হাজার ৯৬৪ জন শনাক্ত হয়। এ হিসেবে প্রতি মিনিটে প্রায় ৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

 স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণে এ তথ্য পাওয়া যায়। করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ রোগী শনাক্ত ও মৃত্যুর রেকর্ডের এদিনে দেশের আট বিভাগে করোনা শনাক্তে সর্বমোট ৩৪ হাজার ২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এ সময়ে সারা দেশে করোনারোগী শনাক্তের হার ২৯ দশমিক ৩০ শতাংশ আর একক বিভাগ হিসেবে বরিশালে এদিন রোগী শনাক্তের হার ৪৫ দশমিক ৭৫ শতাংশ।

আর এদিন সর্বোচ্চ ৫৫ জনের মৃত্যুর রেকর্ড হয় খুলনা বিভাগে। মাসখানেক আগেও সর্বোচ্চ মৃত্যুর পরিসংখ্যানে ঢাকা ও চট্গ্রাম বিভাগ এগিয়ে থাকলেও গত বেশ কিছুদিন যাবত করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু হচ্ছে খুলনা বিভাগে। বয়সের হিসেবে সর্বোচ্চ ৮৩ জনের মৃত্যু হয় ষাটোর্ধ্ব বয়সী প্রবীণের।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও মৃত্যুর লাগামহীন ‍ঊর্ধ্বগতি তুলে ধরতে সরকার সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। করোনা নিয়ন্ত্রণে গঠিত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির পরামর্শে ২৮ জুলাই থেকে ৩০ জুলাই পর্যন্ত সীমিত বিধিনিষেধ সাপেক্ষে ৩০ জুলাই পর্যন্ত সারা দেশে লকডাউন ও পরবর্তীতে প্রথমে ১ জুলাই ও পরবর্তীতে আজ ৫ জুলাই জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ১৪ জুলাই পর্যন্ত কঠোর লকডাউনের নির্দেশনা জারি করেছে।

করোনা নিয়ন্ত্রণে সারা দেশের সকল প্রকার গণপরিবহন বন্ধ রেখেছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া সকল ধরনের পরিবহন চলাচল নিষিদ্ধ করেছে। জন ও যান চলাচল নিয়ন্ত্রণে ১ জুলাই থেকে বিজিবি ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা মাঠে নেমেছে। সারা দেশে করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ চলছে।

আইইডিসিআর জানায়, গত ১৬ মে পর থেকে দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে করোনাভাইরাসের ৫০টি নমুনা সংগ্রহ করে জিনোম সিকোয়েন্সিং করা হয়েছে এবং ফলাফল হিসেবে নমুনার ৮০ শতাংশের মধ্যেই ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া গেছে।

বিষেরবাঁশী.কম / ডেস্ক / রূপা

Categories: করোনা ভাইরাস

Tags:

Leave A Reply

Your email address will not be published.